26 C
Dhaka, BD
Home Blog

কুষ্টিয়ায় রাজু হত্যা মামলা…মাদকের আসর বসিয়ে আসামীর মাদক সেবন..!!

6

কুষ্টিয়ায় সশস্ত্র অবস্থায় বাড়িতে প্রবেশ করে ঘুম থেকে ডেকে তুলে যুবককে গুলি করে হত্যার ঘটনায় এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত এ হত্যা মামলায় ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ। বাকী আসামীদের এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ – আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। অন্যান্য আসামীরা গ্রেফতার না হওয়ায় চরম উৎকন্ঠায় দিন কাটছে ওই এলাকার সাধারণ মানুষের। এদিকে হত্যা মামলার এক আসামীর মাদক সেবনের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। মাদকাসক্ত আসামীরা আবারও সংঘবদ্ধ হয়ে হামলা চালাতে পারে সে আশংকায় আতংকে দিনাতিপাত করছে নিহত রাজু আহাম্মেদের পরিবার স্বজনরা।

এলাকায় রাজু হত্যা মামলার আসামী আশরাফুলের মাদক সেবনের ছবি নিয়ে নতুন করে আলোচনা সমালোচনা শুরু হয়েছে। কেউ কেউ বলছে হত্যা কান্ডের পর মাদকের আসর বসিয়েছে আসামীরা। আবার স্থানীয় কয়েকজনের দাবী ওই ছবি বেশ কিছুদিন পূর্বের মাদক আসরের।

ছবিতে দেখা যায় মামলার আসামী আশরাফুল কয়েকজনকে সাথে নিয়ে মাদকের আসর বসিয়ে মাদক সেবন করছে। আশরাফুল রাজু হত্যা মামলার ২৪ নং আসামি। সে স্বস্তিপুর গ্রামের খোরশেদ আলমের ছেলে । তবে তারা কোথায় মাদকের আসর বসিয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

নিহত রাজু আহাম্মেদের ভাই শাহীন আলম আপডেট কুষ্টিয়া কে জানান, আসামীরা এখনো বিভিন্ন মাধ্যমে আমাদের হুমকী দিচ্ছে। আমাকেও মেরে ফেলবে এমন হুমকীও দিচ্ছে। তিনি বলেন দুই দিন আগে রাতে পাশের ভাটা এলাকায় গুলির মত আওয়াজ হয়। এতে আমরা সবাই আতংকিত হয়ে পড়ি।
এ হত্যা মামলায় কজন গ্রেফতার হয়েছে তা তারা নিশ্চিত নন। তবে বাকী আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার ও রাতে এলাকায় পুলিশী টহল বাড়ানোর জন্য কুষ্টিয়া পুলিশ সুপার সহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানান।

কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সাব্বিরুল আলম জানান, রাজু হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত ৪ জনকে গ্রেফতার করে আদালাতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। বাকীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এছাড়াও নতুন করে এলাকায় কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা ঘটতে না পারে সেজন্য মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তাসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা টহল অব্যাহত রেখেছেন।

উল্লেখ্যঃ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ভাদালিয়া এলাকার দরবেশপুর গ্রামে গত ২৩ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাত ১ টার দিকে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সশস্ত্র অবস্থায় বাড়িতে হামলা করে রাজু আহম্মেদ (৩৭) নামের এক যুবক কে ঘুম থেকে ডেকে তুলে এলোপাতাড়ি ভাবে গুলি করে সন্ত্রাসীরা । পরে তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত রাজু আহম্মেদ দরবেশপুর গ্রামের মুন্তা মন্ডলের ছেলে।

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সাপের কামড়ে স্কুলছাত্রীর মৃত্যু

46

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সাপের কামড়ে সোনিয়া খাতুন (১৪) নামে এক স্কুলছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (০২ অক্টোবর) ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

নিহত সোনিয়া উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের ইউনিয়নের দক্ষিণ দাড়েরপাড়া এলাকার গ্রামপুলিশ জালাল উদ্দিনের মেয়ে। সোনিয়া ডিজিএম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ছিলেন। ৪০ দিন আগে তার মা রোজিনা খাতুন হৃদরোগে মারা যান।

নিহতের বাবা জালাল উদ্দিন জানান, শুক্রবার রাতের খাবার খেয়ে নানির সঙ্গে ঘুমিয়ে ছিল সোনিয়া। ঘুমন্ত অবস্থায় মধ্যরাতে তাকে সাপে কামড় দেয়। যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকলে আমরা বুঝতে পারি তাকে সাপে কামড় দিয়েছে।

এরপর তাকে দ্রুত কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোরের দিকে সোনিয়ার মৃত্যু হয়।

কুষ্টিয়ায় ৫০ লিটার মদসহ আটকের পর থানায় মল ঢেলে আসামী ছাড়িয়ে নেয়ার হুমকী

41

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৫০ লিটার বাংলা মদ সহ হরিজন পল্লীর দুজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হলে তাদের ছাড়িয়ে নিতে থানায় মল ঢেলে দেবার হুমকি দিয়েছে উপজেলার পৌরসভার হরিজন পল্লীর সদস্যরা।

শনিবার দুপুরে হরিজন পল্লীর প্রায় ৫০ জন নারী পুরুষ কুমারখালী থানায় এই ঘটনা ঘটায়। দুই মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

আটককৃত মাদক ব্যবসায়ী কুষ্টিয়া পাঁচ রাস্তার মোড় হরিজন পল্লীর ছেদিয়া বাঁশফোড়ের ছেলে উজ্জ্বল বাঁশফোঁড় ও বাদল বাঁশফোড়ের ছেলে জীবন বাঁশফোড়।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুষ্টিয়া রাজবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়কের চড়াইকোল আলাউদ্দিন নগর এলাকা থেকে কুমারখালী থানার এসআই নজরুল সঙ্গীয় অফিসারসহ দুজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে। এসময় তাদের নিকট থেকে ৫০ লিটার বাংলা মদ উদ্ধার করা হয়।

আসামীদেরকে থানায় নিয়ে আসা হলে কুমারখালী পৌরসভার হরিজন পল্লীর প্রায় ৫০ জন নারী পুরুষ থানা চত্বরে এসে আসামীদের ছেড়ে দেয়া নাহলে বালতিতে মল নিয়ে ঢেলে দেবার হুমকি দেয়। এসময় পুলিশ কঠোর অবস্থানে থেকে তাদেরকে নিয়ন্ত্রণ করে।

এ বিষয়ে কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, ৫০ লিটার মদ সহ দুজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে।

গণটিকা কর্মসূচি: এক কোটি সিরিঞ্জ সরবরাহ করেছে জেএমআই

4

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে ২৮ সেপ্টেম্বর ৭৫ লাখ মানুষকে মহামারি করোনা প্রতিরোধী টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা হাতে নেওয়া হয়। আর এ কর্মসূচি বাস্তবায়নে ১ কোটি সিরিঞ্জ সরবরাহ করেছে জেএমআই সিরিঞ্জ ও মেডিক্যাল ডিভাইস।

সিরিঞ্জ সরবরাহের বিষয়ে গত ২৬ সেপ্টেম্বর জেএমআই সিরিঞ্জ ও মেডিক্যাল ডিভাইস লিমিটেডকে চিঠি দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

জেএমআইয়ের কর্মকর্তারা জানান, মঙ্গলবার সকালে গণটিকাদান কর্মসূচি শুরুর আগেই দেশের ৬৪ জেলায় নির্দিষ্ট টিকা কেন্দ্রে সিরিঞ্জ পৌঁছে দিয়েছেন তারা।

জেএমআই সিরিঞ্জ ও মেডিক্যাল ডিভাইস লিমিটেড পূঁজিবাজারে একটি তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানে জাপানি কোম্পানিরও বিনিয়োগ রয়েছে।

বগুড়ায় ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত

0

বগুড়ার সদর উপজেলায় দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে খাইরুল ইসলাম সুমন (২৭) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে উপজেলার কানুছগাড়ী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সুমন রংপুর জেলার সদর উপজেলার মিস্ত্রীপাড়া এলাকার আ. খালেকের ছেলে। তিনি শহরের সামগ্রাম এলাকায় থাকতেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার রাত কানুছগাড়ী এলাকার ইবনে সিনা ডায়াগনস্টিকের সামনে দুই যুবক খায়রুলের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে তাকে ছুরিকাঘাত করা হলে তিনি দৌড়ে একটি ফার্মেসির দোকানে প্রবেশ করে আত্মরক্ষার চেষ্টা করেন। ওই দুই যুবক ফার্মেসির ভিতরে প্রবেশ করে খায়রুলকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বগুড়া জেলা পুলিশের মিডিয়া মুখপাত্র ও সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদ জানান, এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য দ্রুত উদঘাটনে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে।

ক্ষমতাসীনরা দুর্নীতি- লুটপাট- দলবাজি- ক্ষমতাবাজিতে লিপ্ত রয়েছে….কুষ্টিয়ায় ইনু

14

জাসদ সভাপতি ও কুষ্টিয়া-২ (মিরপুর-ভেড়ামারা) আসনের সংসদ সদস্য হাসানুল হক ইনু বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত জঙ্গি চক্র দেশকে সংবিধানের বাইরে ঠেলে দেওয়ার অস্বাভাবিক পরিস্থিতি তৈরি করার ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের রাজনীতিতে লিপ্ত রয়েছে। অপরদিকে ক্ষমতাসীনরা দুর্নীতি- লুটপাট- দলবাজি- ক্ষমতাবাজিতে লিপ্ত রয়েছে। দেশের গণতন্ত্র, আইনের শাসন, সাংবিধানিক প্রক্রিয়া ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এখনও নিরাপদ নয়। দেশে রাজনৈতিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখার জন্য মুক্তিযুদ্ধসহ অতীতের সকল ঐতিহাসিক গণআন্দোলনে মীমাংসিত বিষয়গুলোকে অমীমাংসিত করার সকল অপচেষ্টা বন্ধ করার আহ্বান জানান তিনি।

আজ বুধবার দুপুরে মিরপুর উপজেলার নিমতলা কলেজের নব-নির্মিত ভবন উদ্বোধনকালে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইনু এসব কথা বলেন।

হাসানুল হক ইনু এমপি আরো বলেন, গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রা এখনও মজবুত হয়নি। এখনও চক্রান্তের মধ্য দিয়ে বিএনপি-জামায়াত সরকার উৎখাতের খেলায় লিপ্ত রয়েছে। দুর্নীতিবাজ-দলবাজ সিন্ডিকেট সুশাসনের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়াচ্ছে।

ইনু মনে করেন, গণতন্ত্রকে মজবুত করতে হলে ক্ষমতাসীনদের সমালোচনা সহ্য করতে হবে। বিরোধীদের চক্রান্ত ও জঙ্গি-জামায়াত ছাড়তে হবে। তা না-হলে রাজনৈতিক অঙ্গন অস্থিতিশীল থাকবে।

নিমতলা কলেজের অধ্যক্ষ শাহজাহান আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মহাম্মদ আব্দুল্লাহ, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও উপজেলা জাসদের সাধারন সম্পাদক আহাম্মদ আলী, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক কারশেদ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক আফতাব উদ্দিন প্রমুখ। এসময় উপজেলা জাসদ, ইউনিয়ন জাসদ, জাসদ নারী জোট, জাসদ যুবজোট ও জাসদ ছাত্রলীগের বিভিন্ন নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

নওমুসলিম আব্দুল হালিমকে ঘর প্রদান করলো সামাজিক স্বেচ্ছাসেবি সংগঠন

0

কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার যদুবয়রা ইউনিয়নের জোতমোড়া গ্রামে বসবাসরত নওমুসলিম আব্দুল হালিম, পিতা মৃত শ্রী সুনিল কুমার কুন্ডু,মাতা নীলিমা রানী। উনার আদি নিবাস কুমারখালী কুন্ডু পাড়াতে। কিন্তু উনি ইসলাম গ্রহন করার পর এখন যদুবয়রা ইউনিয়নের জোতমোড়া গ্রামে বসবাস করেন। বসবাসের জন্য ছিলনা কোন জমি একজন মহৎপ্রান ব্যক্তি উনাকে পাঁচ শতাংশ জমি দান করেন।

বর্তমানে সেখানেই একটা ভাঙ্গা চুরা খুপরি ঘরে একমাত্র মেয়ে নিয়ে বসবাস করতেন। বৃষ্টি এলে সারাঘর বৃষ্টির পানিতে ভিজে যায়। বয়সের ভারে এবং বিভিন্ন শারীরিক অসুস্থতার কারনে এখন আর পরিশ্রম করতে পারেননা।বিভিন্ন মানুষের সহযোগিতায় দিন আনে দিন খায়। তাই বিষয়টি আমাদের দৃষ্টিতে আসায় মানবিক কারনে আমরা সবার ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সহযোগিতা একত্রিত করে YDF থেকে একটি ২৬ বন্দর দুই রুম বিশিষ্ট ডোয়া মেঝে পাকা করে দরজা,জানালা, ফার্নিচার সহ ১,২০,০০০/-এক লক্ষ বিশহাজার টাকা ব্যয়ে গৃহনির্মান করে আজ ২৯সেপ্টেম্বর বুধবার সকাল ১১টায় দোয়া ও মোনাজাতের মাধ্যমে উনার নিকট হস্তান্তর করা হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন YDF এর চেয়ারম্যান আশিকুল ইসলাম চপল, বিশিষ্ট সমাজ সেবক নুরুল ইসলাম আসাদ, প্রভাষক, চৌরঙ্গী কলেজ। মোঃ আব্দুল মোমিন ফরায়েজি, প্যানেল চেয়ারম্যান, যদুবয়রা ইউনিয়ন পরিষদ। মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, প্রধান শিক্ষক,জোতমোড়া নিম্নমাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়। সাংবাদিক, সমাজকর্মী ও শিক্ষক মাহমুদ শরীফ। মোঃ আলমগীর হোসেন, সহকারি শিক্ষক, জোতমোড়া নিম্নমাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়। সমাজকর্মী ও সাংবাদিক মাহমুদ হাসান আলাল, সাংবিদিক মিজানুর রহমান নয়ন।

কুমারখালী উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি হাফিজ মাহমুদ ফরায়েজি। সাবেক ইউপি সদস্য আশিকুর রহমান সাবান। YDF এর সদস্য সিরাজুল ইসলাম লিটু। কামরুজ্জামান রনি,আব্দুল মতিন সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। গৃহনির্মানে যে সমস্ত মহৎপ্রান ব্যক্তিরা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন মহান সুবহানুতায়ালা তাদের উত্তম প্রতিদান দান করুন। আমিন

করোনা পরীক্ষার আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ

0

এখনো সন্ধান মেলেনি খুলনা জেনারেল হাসপাতালের টেকনোলজিস্ট প্রকাশ কুমার দাসের। তার স্ত্রী খুলনার শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের ফার্মাসিস্ট মাধবী রানী দাসও পলাতক রয়েছেন ।

গত সোমবার রাতে আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ করে লাপাত্তা হওয়ার বিষয়ে খুলনা থানায় সাধারণ ডায়েরী ও দুদকে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন খুলনার সিভিল সার্জন ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ। এছাড়া প্রকাশ কুমার যেন পালিয়ে যেতে না পারে সে ব্যাপারে পুলিশ কমিশনারকে অনুরোধ করেছেন তিনি।

এদিকে, মামমলার সব উপাদান থাকার পরও শুধুমাত্র জিডি করায় বিষয়টি প্রশ্নের উদ্রেক করেছে। তবে, নাম উল্লেখ না করার শর্তে স্বাস্থ্য বিভাগের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, আমরা লোপাট হওয়া টাকা আদায়ের বিষয়টি আগে ভাবছি। তাই জিডি হয়েছে। অভিযুক্তকে পাওয়া গেলে হয়তো টাকা উদ্ধার হবে। এরপর তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিভিল সার্জন নিয়াজ মাহমুদ জানান, প্রকাশকে হাসপাতালে আসার জন্য তার ঠিকানা বরাবর একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে। প্রকাশের ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরে একাধিকবার যোগাযোগ করেও তার সন্ধান মেলেনি। তিনি খুলনা থানায় জিডি ও দুদকে অভিযোগ করেছেন। এরপরে খুলনা মেট্রোপলিটন কমিশনারের সাথে দেখা করে প্রকাশ যেন পালিয়ে যেতে না পারে সে ব্যবস্থা গ্রহনের অনুরোধ করেছেন।

খুলনা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাসান আল মামুন জানান, সোমবার রাত সাড়ে ১১ টায় প্রকাশের বিরুদ্ধে খুলনা থানায় জিডি করেছেন খুলনা সিভিল সার্জন, যার নং ১৬০১। সেখানে করোনা টেস্টের ২ কোটি ৫৮ লাখ টাকা আত্মসাৎ করায় প্রকাশকে অভিযুক্ত করা হয়। মঙ্গলবার সকালেই জিডির বিষয়টি দুদককে জানানো হয়।

দুদক খুলনা উপ-পরিচালক নাজমুল হাসান জানান, খুলনা জেনারেল হাসপাতালের ২ কোটি ৫৮ লাখ টাকা আত্মসাতের বিষয়টি অবহিত হয়েছি। অভিযোগটি ঢাকা অফিসকে জানানো হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ এলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জিডি সূত্রে জানা গেছে, পলাতক প্রকাশ কুমার দাস যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার এগারোখান ঘোড়ানাচ এলাকার মৃত সুরেন্দ্রনাথ দাসের ছেলে। খুলনায় তার ঠিকানা মুজগুন্নী আবাসিকের ১০ নং সড়কের ১২৮ নম্বর বাড়ি। তবে নির্ধারিত ঠিকানায় গিয়ে জানা গেছে, ৫ বছর আগে তিনি বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছেন। তার স্ত্রী মাধবী রানী দাস খুলনার শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের একজন ফার্মাসিস্ট।

শখের মোটরসাইকেলে প্রাণ গেল বাবার একমাত্র ছেলের

0

ফেনীর পরশুরাম সড়কের রানীর হাট এলাকায় ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেলে থাকা এক কলেজ ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে ফেনীর পরশুরাম সড়কের রানীর হাট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ছাত্র ফুলগাজী উপজেলার পশ্চিম দরবারপুর গ্রামে সৈয়দ বাড়ির নুরুল আবসারের ছেলে সৈয়দ তৌফিকুল ইসলাম (২৩)। তিনি ফেনী সরকারি কলেজের অনার্স চতুর্থ বর্ষের ছাত্র।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকালে প্রাইভেট পড়তে মোটরসাইকেল নিয়ে ফেনী শহরের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হন তৌফিক। রানীর হাট এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক তাকে চাপা দেয়। পরে তাকে উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

নিহতের বাবা আবসার জানান, তৌফিক ইসলাম তার একমাত্র ছেলে। কিছুদিন আগে শখের বশে তাকে মোটরসাইকেলটি কিনে দেয়া হয়। এখন সেই মোটরসাইকেলেই তার প্রাণ গেল।

ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো নিজাম উদ্দিন জানান, এ সংবাদ পেয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে এ ঘটনায় জড়িত কাউকে শনাক্ত করা যায়নি।

ইকুয়েডরের কারাগারে ২৪ জন নিহত

16

ইকুয়েডরের কারাগারে ভয়াবহ দাঙ্গায় কমপক্ষে ২৪ জন বন্দি নিহত হয়েছে। এসময় আহত হয় আরও ৪৮ বন্দি।

দেশটির গুয়াইয়াস প্রদেশের দেল লিটোরাল কারাগারে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) এই সহিংস দাঙ্গার ঘটনা ঘটে।

ইকুয়েডরের কারাগার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গোলাগুলি ও বিস্ফোরণের ঠেকাতে কারাগারে প্রয়োজনীয় সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাতে এপি জানিয়েছে, দেশটির কারাগারের নিয়ন্ত্রণ নেয়া নিয়ে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে সন্ত্রাসী গ্রুপগুলোর ভেতরে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হতে দেখা গেছে।

এই ঘটনাসহ চলতি বছরে দেশটির কারাগারে তৃতীয়বারের মতো প্রাণঘাতী দাঙ্গার ঘটনা ঘটলো।

Dhaka, BD
haze
26 ° C
26 °
26 °
83 %
3.1kmh
40 %
বুধ
31 °
বৃহঃ
32 °
শুক্র
32 °
শনি
31 °
রবি
31 °

সর্বাধিক পঠিত