স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করবে বিএনপি

52
438

অনুসন্ধান নিউজ ডেস্ক : নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করবে বিএনপি। এর আগে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে পালন করবার জন্য একটি উপকমিটি গঠন করে দলটি।

শনিবার (১ নভেম্বর) রাতে দলটির জাতীয় স্থায়ী কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। এজন্য বিস্তারিত কর্মসূচি নেয়ারও সিদ্ধান্ত হয়েছে।

উপকমিটি সারা বছর ধরে কর্মসূচি পালনের পরিকল্পনা এবং সেসব কর্মসূচি বাস্তবায়ন করার ব্যবস্থা গ্রহণ করে। উপকমিটির প্রধান করা হয় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে। সদস্য হিসেবে আছেন স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান ও বেগম সেলিমা রহমান। বৈঠকে সাম্প্রতিক সময়ে সরকারি কর্মকর্তাদের ওপর হামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিএনপির নীতি নির্ধারণী এ ফোরাম। এক নেতা জানান, বিশেষ করে কক্সবাজারে মেজর (অব.) সিনহা হত্যা, রাজধানীর কলাবাগানে নৌ-বাহিনীর একজন কর্মকর্তাকে রক্তাক্ত করা ও তার স্ত্রীর গায়ে হাত তোলা, গত বৃহস্পতিবার পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলায় একজন কৃষি কর্মকর্তাকে ইউপি চেয়ারম্যানের মারধরের ঘটনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। নেতারা মনে করেন, আইনের শাসন না থাকার কারণে এসব হচ্ছে। এর সাথে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতা অথবা তাদের পুলিশ প্রশাসন জড়িত। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা মনে করে তারা যা খুশি করতে পারে। তাদের বিচার করার কেউ নেই। আসলে ক্ষমতার গরমেই তারা এসব করছে।

সূত্র জানায়, বৈঠকে রাজনৈতিক দলের নিবন্ধনসহ নির্বাচন কমিশনের নানা উদ্যোগ নিয়ে বৈঠকে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। এ বৈঠকে বরিশাল বিভাগের সাংগঠনিক রিপোর্ট উত্থাপন করা হয়। লন্ডন থেকে স্কাইপেতে যুক্ত হয়ে বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

নিজ নিজ বাসায় থেকে বৈঠকে অংশ নেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।

52 COMMENTS

Comments are closed.