খাতা টেম্পারিং, ভিকারুননিসায় শুরু হচ্ছে তদন্ত

20
11012

নিজস্ব প্রতিবেদক : ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রশাসনিক কর্মকর্তা পদে নিয়োগ দিতে পরীক্ষার খাতা টেম্পারিং করার বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করবে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারের তদন্ত কমিটি।

মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) কমিটির আহ্বায়ক অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন ও আইসিটি) এ কে এম মাসুদুজ্জামান ঘটনাটি তদন্তের বিষয়ে অধ্যক্ষকে চিঠি দিয়েছেন।

এ কে এম মাসুদুজ্জামানের সই করা চিঠিতে নিয়োগ পরীক্ষার খাতা মূল্যায়ন কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত সবাইকে উপস্থিত থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়। এতে বলা হয়, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে গত ৭ নভেম্বর অনুষ্ঠিত নিয়োগ পরীক্ষার খাতা মূল্যায়ন কার্যক্রমে সংঘটিত অনিয়মের বিষয়ে আগামী বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) সকাল ১০টায় তদন্ত কার্যক্রম পরিচালিত হবে। খাতা মূল্যায়নের সব সদস্য ও সে সময় উপস্থিত নিয়োগ কমিটির সস্যদের ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে হাজির করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হলো।

অধ্যক্ষকে দেওয়া চিঠিতে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (উন্নয়ন) মো. মাজহারুল ইসলাম, গভর্নিং বডির সদস্য এ বি এম মনিরুজ্জামান (অভিভাবক প্রতিনিধি), মুর্শিদা আখতার (অভিভাবক প্রতিনিধি), ওহেদুজ্জামান মন্টু (অভিভাবক প্রতিনিধি,) গোলাম বেনজীর (অভিভাবক প্রতিনিধি), অ্যাডভোকেট রীনা পারভিন (সংরক্ষিত অভিভাবক প্রতিনিধি) এবং অভিযুক্ত শিক্ষক ফাতেমা জোহরা হককে (শিক্ষক প্রতিনিধি) অবহিত ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুলিপি দেওয়া হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) বিকালে অভিভাবক ফেরামের সভাপতি আব্দুর রহিম হাওয়লাদার (রানা) এবং সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল মজিদ সুজন অভিভাবকদের পক্ষে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিবের কাছে লিখিত আবেদন দিয়ে মন্ত্রণালয়কে ঘটনাটি তদন্তের দাবি জানান। লিখিত আবেদনে টেম্পারিংয়ের জন্য অভিভাবক ফোরাম অধ্যক্ষ অধ্যাপক ফওজিয়া রেজওয়ানকেও দায়ী করেছে।

প্রসঙ্গত, গত শনিবার (৭ নভেম্বর) ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা পদে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ওই পরীক্ষার খাতা মূল্যায়নের সময় দুই জন প্রার্থীর নম্বর বাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। পরে শিক্ষক প্রতিনিধি ফাতেমা জোহরা হক এক প্রার্থীর নম্বর বাড়িয়ে দিয়েছেন বলে প্রমাণ পান গভর্নিং বডির সভাপতি ও ঢাকার বিভাগীয় কমিশনারের প্রতিনিধি সিনিয়র সহকারী কমিশনার মো. মাজহারুল ইসলাম। পরের দিন পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও গভর্নিং বডির সভায় মৌখিক পরীক্ষা বাতিল করা হয়।

20 COMMENTS

  1. Magnificent goods from you, man. I’ve understand your stuff previous to and you are just
    too magnificent. I really like what you have acquired here, certainly like what you are saying and the way in which you say it.
    You make it entertaining and you still take care of to keep it smart.
    I cant wait to read much more from you. This is actually a
    wonderful web site.

  2. Hello there, I discovered your blog by the use of Google while searching for a related
    subject, your website got here up, it seems great.
    I have bookmarked it in my google bookmarks.
    Hi there, just become alert to your weblog via
    Google, and located that it’s truly informative. I am going to be careful for
    brussels. I’ll appreciate in case you proceed this in future.
    Lots of other people will likely be benefited from
    your writing. Cheers!

Comments are closed.