ভারতের আলোচিত সাংবাদিক জামিনে মুক্ত

0
419
Arnab Goswami, one of India's top TV news anchors, sits inside a police van outside a court after he was arrested, at Alibaug town in the western state of Maharashtra, India, November 4, 2020. REUTERS/Stringer NO ARCHIVES. NO RESALES.

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলায় ভারতের রিপাবলিক টিভির এডিটর-ইন-চিফ অর্ণব গোস্বামীকে অন্তর্বর্তী জামিন দিয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। বুধবার (১১ নভেম্বর) তার জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় ও ইন্দিরা ব্যানার্জির দুই সদস্যের বেঞ্চ। এর আগে গত ৯ নভেম্বর বোম্বে হাইকোর্ট তার অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন খারিজ করে দেন। সম্প্রচার মাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

২০১৮ সালে এক ইন্টেরিয়র ডিজাইনার এবং তার মাকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মামলায় গত বুধবার (৪ নভেম্বর) ভোরে অর্ণবকে মুম্বাইয়ে নিজের বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

প্রশাসনের দাবি, তাদের সুইসাইড নোটে বলা হয়েছিল, অর্ণব গোস্বামী ৫ কোটি ৪০ লাখ টাকা শোধ না করায় তাদের আর্থিক অনটনে পড়তে হয়েছে। সে কারণেই তারা আত্মহত্যা করছেন। তারপরই অর্ণবের বিরুদ্ধে ঋণ খেলাপি এবং আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ দায়ের করেন ওই ইন্টেরিয়র ডিজাইনারের ছেলে।

গ্রেপ্তারের প্রথমদিনেই দীর্ঘ ৬ ঘণ্টার শুনানির পর মহারাষ্ট্রের আলিবাগ আদালত অর্ণবকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। মধ্যরাতের ওই নির্দেশের পাশাপাশি পুলিশের বিরুদ্ধে তোলা অর্ণবের নিপীড়নের অভিযোগও খারিজ করে দেন আদালত।

বুধবার অর্ণব গোস্বামীর অন্তর্বর্তী জামিন আবেদনের শুনানির সময় সুপ্রিম কোর্ট বলেছেন, সাংবিধানিক আদালত হিসেবে আমরা যদি আইন অনুসরণ এবং স্বাধীনতার সুরক্ষা না দেই তাহলে কে দেবে। যদিও আদালতের আদেশে অর্ণবকে তদন্তে পূর্ণ সহযোগিতা করতে বলা হয়েছে। এছাড়া ৫০ হাজার রুপির বন্ডে আগামী আগামী দুই দিনের মধ্যে তাকে মুক্তি দিতে বলা হয়েছে আদালতের আদেশে।

উপস্থাপনা ও প্রশ্নের আগ্রাসী ধরনের কারণে ভারতে ব্যাপক পরিচিত অর্ণব গোস্বামী। তবে সমালোচকদের দৃষ্টিতে তিনি ভারতের ডানপন্থি রাজনীতির প্রতি সহানুভূতিশীল। বলিউড অভিনেতা সুশান্ত রাজপুতের মৃত্যুর পর তিনি মুম্বাই পুলিশের কঠোর সমালোচনা করেন। মহারাষ্ট্রে শিব সেনার জোট সরকারেরও কঠোর সমালোচক তিনি।

উল্লেখ্য, আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলাটি দুই বছর আগেই প্রমাণের অভাবে বন্ধ করে দেয় মুম্বাই পুলিশ। তবে নিহতের পরিবারের অনুরোধে মামলাটি সম্প্রতি আবারও সচল করা হয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।