শ্রীলঙ্কান বোর্ডের বিরুদ্ধে আদালতে মুরালিধরন

5
118

স্পোর্টস ডেস্ক : দিনে দিনে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট বোর্ডের অবস্থা খারাপের দিকেই যাচ্ছে। দেশটির ক্রিকেট বোর্ডে সরাসরি রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ চলছে। চলছে নানা অনিয়ম।

এবার জানা গেল, লঙ্কান বোর্ডের গঠনতন্ত্রেই গলদ! ত্রুটিপূর্ণ এই গঠনতন্ত্রের আমূল পরিবর্তন চেয়ে আদালতে আবেদন করেছেন ১২ জন। যাদের মধ্যে অন্যতম স্পিন কিংবদন্তি মুত্তিয়া মুরালিধরন।

লঙ্কান বোর্ডের এই গঠনতন্ত্র তৈরি হয়েছিল তারা টেস্ট মর্যাদা পাওয়ারও আগে। সেই প্রাক-পেশাদার যুগে বানানো এসএলসির গঠনতন্ত্রকে অনেকেই উপযুক্ত মনে করেন না। এই গঠনতন্ত্রের কারণে দেশটির ঘরোয়া ক্রিকেট দুর্বল হয়ে পড়েছে বলে মনে করছেন সংস্কারপন্থীরা।

এতদিন গঠনতন্ত্রে পরিবর্তন আনার চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু কিছুতেই কিছু হয়নি। যে কারণে সংস্কারপন্থীরা আদালতে অভিযোগ দায়ের করেছে।

আবেদনে বলা হয়েছে, ঘরোয়া ক্রিকেটের মানের কারণেই ২০১৬ থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ছেলেদের জাতীয় দলের পারফরম্যান্সের অবনতি ঘটেছে।

অভিযোগর প্রেক্ষিতে এসএলসি ও লঙ্কান ক্রীড়া মন্ত্রীকে এরই মধ্যে নোটিশ পাঠিয়েছে আদালত। আগামী ১৫ মার্চ তাদেরকে এই আবেদনের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এসএলসির নির্বাচনে ভোট ১৪৮টি। যেখানে শ্রীলঙ্কার চেয়ে প্রায় ৬০ গুণ বেশি জনংসংখ্যার দেশ ভারতের ক্রিকেট বোর্ড-বিসিসিআইয়ের ভোট কেবল ৩৮টি। এছাড়া বর্তমানে নির্বাহী কমিটিতে একজনও নারী নেই। গঠনতন্ত্রে পরিবর্তন এলে এসএলসির প্রশাসনে নারীদের অংশগ্রহণ বাড়তে পারে। দেশটির ৪টি প্রদেশ থেকেই সব ক্রিকেটার উঠে আসে; কিন্তু বাকি ৫টি প্রদেশ থেকে একজনও টেস্ট ক্রিকেটার নেই। এবার দেখার, আদালতের রায়ে কী পরিবর্তন আসে।

5 COMMENTS

Comments are closed.