সু চির বিরুদ্ধে আদালতে দ্বিতীয় অভিযোগ গঠন

15
80

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিয়ানমারের সেনা সদস্যদের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চির বিরুদ্ধে এবার দ্বিতীয় অভিযোগ গঠন করছে দেশটির সামরিক সরকার। মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) ভিডিয়ো লিঙ্কের মাধ্যমে আদালতে হাজির হলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগটি গঠন করা হয়।

ব্রিটিশ মিডিয়া বিবিসি নিউজের খবরে বলা হয়, সু চির বিরুদ্ধে জান্তা সরকার প্রথমে অবৈধভাবে ছয়টি ওয়াকিটকি আমদানি করার চার্জ গঠন করে। আর তার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় চার্জ গঠন করা হচ্ছে ‘প্রাকৃতিক বিপর্যয় ব্যবস্থাপনা আইনে।’ তবে দ্বিতীয় অভিযোগের বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। সু চির আদালতে পরবর্তী হাজিরার দিন নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ১ মার্চ।

এ দিকে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী দেশে পুনরায় নির্বাচন দেওয়ার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছে। স্টেট কাউন্সেলর সু চিকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর সেনাবাহিনীর প্রথম সংবাদ সম্মেলনে বিগ্রেডিয়ার জেনারেল জেন জ মিন তুন জানান, তারা দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকবেন না। নির্বাচন দিয়ে বিজয়ীদের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন। যদিও সেই নির্বাচন ঠিক কবে অনুষ্ঠিত হবে সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো তারিখ জানাননি তিনি।

মিয়ানমারের রাজধানী শহর নেপিদোতে সেনাবাহিনীর ওই সংবাদ সম্মেলনে সেনাবাহিনীর মুখপাত্র জ মিন তুন বরাবরের মতোই গত নভেম্বরের নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ করেন। যদিও অভিযোগের পক্ষে তিনি কোনো প্রমাণ সরবরাহ করেননি। ওই নির্বাচনে সু চির রাজনৈতিক দল এনএলডি পার্টি ৮০ শতাংশের বেশি ভোট পেয়ে জয় লাভ করে।

সু চির বিষয়ে এই সামরিক কর্মকর্তা সংবাদ সম্মেলনে জানান, সু চি তার নিজ বাড়িতে নিজস্ব নিরাপত্তায় ভালো এবং সুস্থ আছেন।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের সেনাবাহিনী সু চিসহ তার রাজনৈতিক দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসির অন্তত ২৪ নেতাকে আটক করে। এরপর তারা সামরিক অভ্যুত্থানের ঘোষণা দেয়। সেনাবাহিনী সামরিক অভ্যুত্থানের ন্যায্যতা প্রমাণ করতে ভোট জালিয়াতির অভিযোগ আনছে।

15 COMMENTS

Comments are closed.