ষষ্ঠ বিয়ের প্রস্তুতি, ৩২ নারীর সঙ্গে কথা বলার সময় গ্রেপ্তার ‘বাবা’!

4
177
ষষ্ঠ বিয়ের প্রস্তুতি, ৩২ মহিলার সঙ্গে কথা বলার সময় গ্রেপ্তার ‘বাবা’!

পাঁচবার বিয়ে করেছেন তিনি। প্রথম থেকেই কারও সঙ্গে দাম্পত্য জীবন টিকে উঠেনি। চারজনই বিবাহ বিচ্ছেদ চেয়েছেন ও একজন আত্মহত্যা করেছেন। এরপর পরবর্তী বিয়ের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন স্বঘোষিত ‘বাবা’। কিন্তু পুলিশ বিষয়টি জানতে পেরে ধরে ফেলে তাকে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের কানপুরে।

শুক্রবার (১৮ জুন) কানপুর থেকে অনুজ চেতন কাঠারিয়া নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, আগের স্ত্রীদের সঙ্গে আইনগত বিচ্ছেদ না করেই একের পর এক বিয়ে করেছেন অনুজ। অনেক নারীকে ঠকিয়েছেন ও প্রতারণা করেছেন। শাহজাহানপুরের বাসিন্দা অনুজ সম্প্রতি ষষ্ঠ বিয়ের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। কিন্তু বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার আগেই তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

২০০৫ সালে প্রথম বিয়ে করেন অনুজ। মৈনপুরী জেলার এক নারীকে বিয়ে করেন সে। পাঁচ বছরের মধ্যে মামলা হয়। ২০১০ সালে আবার বিয়ে। বরেলি জেলার এক নারীকে বিয়ে করেন। ৪ বছর পর আবার ঔরিয়া জেলার এক নারীকে বিয়ে করেন। এরপর তৃতীয় স্ত্রীর এক তুতো বোনকে বিয়ে। এই চতুর্থ স্ত্রী আত্মহত্যা করেন। মূলত অনুজের আগের বিয়ের বিষয়ে জানতে পেরেই আত্মহত্যা করেন তিনি। ২০১৯ সালে পঞ্চম বিয়ে করেন। কিন্তু বিয়ের পরই স্ত্রীকে মানসিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতন শুরু করেন। ফলে বাধ্য হয়েই থানায় অভিযোগ করেন পঞ্চম স্ত্রী।

এ ঘটনায় পুলিশ জানিয়েছে, পঞ্চম স্ত্রীর অভিযোগের পরই পরবর্তী বিয়ের প্রস্তুতি নিতে থাকেন অনুজ। সে নিজেকে নেটওয়ার্ল্ডে ‘লাকি পাণ্ডে’ পরিচয় দিয়ে নারীদের ফাঁদে ফেলতেন। কাউকে বলতেন পেশায় ব্যবসায়ী, কাউকে স্কুল শিক্ষক, আবার কারো কাছে নিজেকে তান্ত্রিক বলে পরিচয় দিতেন। এরপর আশ্রমে ডেকে সমস্যা সমাধানের কথা বলে শারীরিকভাবে হেনস্থা করতেন। শুক্রবার ৩২ জন নারীর সঙ্গে কথা বলার সময়ই তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

4 COMMENTS

Comments are closed.