প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গার তালসারি সড়ক

22
125

তালসারি কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নে হরিরামপুর-সিবনগর ও ডিসি ইকো পার্কের প্রবেশ রাস্তার দু-পাশে সারিবদ্ধ তালগাছ থাকায় এই রাস্তার নামকরণ করা হয়েছে তালসারি। জমিদার নফর পাল চৌধরীর স্মৃতিবিজরিত এই তালসারি রাস্তা দিয়ে কোলকাতা যাওয়ার রাস্তা ছিল। বতমানে ৪৮ একর বিভিন্ন প্রজাতির বগান ও ৭৮ একর বটতলী বিলের জলকর নিয়ে ডিসি ইকো পার্কে তৈরি হয়েছে। যার একমাত্র রাস্তা হলো এই তালসারি।

অবিভক্ত বাংলার জমিদারি শাসনামলে এ সড়ক গড়ে তোলার পেছনে তৎকালীন জমিদার নফর পালের স্ত্রী রাধারানীর ভূমিকা অগ্রগণ্য। তার ইচ্ছাপূরণ করতেই এই পাখি ডাকা, ছায়াঘেরা সড়ক তৈরি করা হয় এমনটি বলেছেন ইতিহাসবিদরা।

চুয়াডাঙ্গা জেলার ইতিহাস গ্রন্থের লেখক রাজিব আহমেদ জানান, এ অঞ্চলের জমিদার ছিলেন নফর পাল। তিনি ছিলেন ক্ষ্যাপাটে প্রকৃতির। তার স্ত্রী রাধারানী ছায়াঘেরা পথে কৃষ্ণনগর যাওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেন।
রাধারানীর ইচ্ছাপূরণ করতে জমিদার নফর পাল নাটুদহ থেকে কৃষ্ণনগর পর্যন্ত সড়ক ছায়া সুনিবিড় করার উদ্যোগ নেন। তার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন না হলেও প্রায় ১২ কিলোমিটার রাস্তার সঙ্গে এক কিলোমিটার পর পর ফলবাগান গড়ে তোলা হয়।

এছাড়াও রাস্তার দুই পাশে বিভিন্ন জাতের গাছ রোপণ করা হয়। কালক্রমে আম, জাম, কাঁঠাল, কলা ইত্যাদি গাছের সবই নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে; কিন্তু বহুবর্ষজীবী হওয়ায় ওই সময় লাগানো তালগাছগুলো এখনো একপায়ে দাঁড়িয়ে পথিককে ছায়া আর ফল দিয়ে যাচ্ছে।

নাটুদহ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবদুল মান্নান জানান, এলাকার ক্ষ্যাপাটে জমিদার নফর পালের কর্মকাণ্ডের সাক্ষী হয়ে বেঁচে আছে এসব তালগাছ। এগুলো শুধু ছায়া দেয় না, এলাকার অনেকের জীবন-জীবিকাও সচল রেখেছে।

তিনি আরো জানান, সৌন্দর্যমণ্ডিত সরকারি এ সড়কের দুই পাশের তালগাছ থেকে অনেকে শীতকালে রস সংগ্রহ করে তা বেচে সংসার চালায়। মহাজনপুর গ্রামের শ্রমজীবী হালিমা জানান, তার স্বামী মৌসুমের তিনমাস তালের রস সংগ্রহ করে তাদের সংসারের অভাব মেটান।

প্রাকৃতিক শোভাবর্ধনকারী এই তালসারিতে আশপাশের গ্রামের ছেলেমেয়েরা বনভোজন করতে আসে।
কিভাবে যাওয়া যায়:

১. চুয়াডাঙ্গা শহর হতে সরারসরি বাস/লেগুনাতে করে তালসারিতে যাওয়া যায়
অথবা বাস/সিএনজি/অটো যোগে দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত যাওয়া যায়, চুয়াডাঙ্গা হতে অটো রিজার্ভ করেতালসারিতে যাওয়া যায় ।

২. দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ড হতে বাস/লেগুনা করে ডিসি ইকো পার্ক, তালসারিতে যাওয়া যায়
ভাড়াঃ চুয়াডাঙ্গা-দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ড ১. বাস/সিএনজি/অটো যোগে-৩৫/- টাকা।
দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ড হতে বাস/লেগুনা ৩০/- টাকা
রিজার্ভ অটো-২০০-৩০০/- এর মধ্যে,,,,

22 COMMENTS

  1. First off I want to say great blog! I had a quick question in which I’d like
    to ask if you don’t mind. I was interested to find out how you center yourself and clear your mind prior to writing.
    I’ve had a tough time clearing my thoughts in getting my ideas out there.
    I do enjoy writing but it just seems like the first 10 to 15 minutes
    tend to be wasted just trying to figure out how to begin. Any
    recommendations or tips? Appreciate it!

  2. First of all I would like to say terrific blog! I had a quick
    question that I’d like to ask if you don’t mind. I was interested to find out how you center yourself
    and clear your mind prior to writing. I have had difficulty clearing
    my mind in getting my thoughts out there. I do take pleasure in writing however it just seems like the first 10 to 15 minutes are generally wasted
    just trying to figure out how to begin. Any recommendations or
    tips? Appreciate it!

Comments are closed.