মুফতি ইব্রাহীমকে ১০ দিনের রিমান্ডে চায় ডিবি

0
44

বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় মুফতি কাজী ইব্রাহীমকে ১০ দিনের রিমান্ডে চায় মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় দায়ের করা ওই মামলায় রিমান্ড চেয়ে গ্রেফতার মুফতি ইব্রাহীমকে আদালকে পাঠানো হয়েছে।

ডিবির সিরিয়াস ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) শরিফুল ইসলাম জানান, মোহাম্মদপুর থানায় দায়ের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে সোপর্দ করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হবে।

এর আগে ডিবির এক কর্মকর্তা বাদী হয়ে মোহাম্মদপুর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি দায়ের করেন।

মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল লতিফ জানান, ইউটিউব, ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করে নানান বক্তব্য দিয়ে সমালোচিত মুফতি কাজী ইব্রাহীমের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাতে জেড এম রানা নামে একজন বাদী হয়ে প্রতারণার অভিযোগে মুফতি ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা দায়ের করেন।

ডিবির যুগ্ম-কমিশনার হারুন-অর-রশিদ বলেন, মুফতি ইব্রাহীম করোনা নিয়ে মিথ্যা তথ্য প্রচার করছেন। সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের টিকা নিয়ে তার বিভিন্ন বক্তব্য ভাইরাল হয়। মুফতি ইব্রাহীম ফেসবুক, ইউটিউবসহ তার ওয়াজে উল্টা-পাল্টা কথা বলে আসছেন।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) রাতেও ফেইসবুক লাইভে তিনি বাংলাদেশের মানুষকে হিন্দুস্থানের দালাল ও র-এর এজেন্ট বলে প্রচার করেছেন। তিনি বিভিন্ন সময়ে করোনা নিয়ে মিথ্যা তথ্য প্রচার ও ধর্মীয় উস্কানিমূলক বক্তব্য প্রচার করেছেন। যা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা, বিতর্ক হচ্ছে। সেসব বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে হেফাজতে নেওয়া হয়।

নানা ধরনের বক্তব্যে সমালোচিত মুফতি কাজী ইব্রাহীমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাতে রাজধানীর লালমাটিয়ার বাসা থেকে আটক করে মহানগর গোযেন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বাসায় ডিবি পুলিশের অভিযানের সময় ফেসবুক লাইভে এসে র-এর এজেন্ট, গুণ্ডা ডিবি পুলিশ তার বাসা ঘেরাও করেছে বলে অভিযোগ তোলে লাইভে কথা বলেন মুফতি কাজী ইব্রাহীম।