কুষ্টিয়ায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা

0
466

অ্যাডভোকেট আ ক ম সরওয়ার জাহান বাদশা, মাহবুব উল আলম হানিফ ও ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ

নিজস্ব প্রতিবেদক : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুষ্টিয়ার ৪টি সংসদীয় আসনের মধ্যে ৩টি আসনে আওয়ামী লীগ তাদের প্রার্থীর মনোনয়ন ঘোষণা করেছে। রবিবার (২৫ নভেম্বর) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে দলীয় মনোনয়নের চিঠি দেওয়া হয়।

এ জেলায় ৩টি আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন যারা-

কুষ্টিয়া-১ (দৌলতপুর) আসনে প্রথমবারের মতো মনোনয়ন পেয়েছেন অ্যাডভোকেট আ ক ম সরওয়ার জাহান বাদশা। কুষ্টিয়া-৩ (কুষ্টিয়া সদর) আসনে দ্বিতীয় বারের মতো মনোনয়ন পেয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনে প্রথমবারের মতো মনোনয়ন পেয়েছেন ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ।

কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনে এবার দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন নতুনমুখ তরুণ নেতা ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ। তিনি আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য তৎকালীন এমপি ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক গোলাম কিবরিয়ার পৌত্র। তার বড় চাচা আবুল হোসেন তরুণও এই আসনের আওয়ামী লীগের এমপি ছিলেন। এ আসনে ২০০৮ সালে নির্বাচিত হন আবুল হোসেনের সহধর্ধর্মিনী তার বড় চাচি বেগম সুলতানা তরুণ। তার আরেক চাচা শামছুজ্জামান অরুণ কুমারখালী পৌরসভার তিন বারের মেয়র। এই ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক পরিবার থেকে এবার মনোনয়ন পেলেন ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ।

প্রসঙ্গত, কুষ্টিয়া- ২ (ভেড়ামারা-মিরপুর) আসনে আওয়ামী লীগের কোনো প্রার্থীর নাম এখনও ঘোষণা করা হয়নি। এ আসনে ১৪ দলীয় জোটের শরিক দল জাসদের সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু মনোনয়ন পাবে বলে স্থানীয় নেতাকর্মীরা ধারণা করছেন। সে কারণেই এ আসনের মনোনয়ন এখনও ঘোষণা করা হয়নি।

এ দিকে কুষ্টিয়া-১ (দৌলতপুর) আসনে সাবেক ছাত্র নেতা অ্যাডভোকেট আ ক ম সরওয়ার জাহান বাদশার দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে এ আসনে আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি আফাজ উদ্দিন আহমেদ মনোনয়ন না পাওয়ায় তার সমর্থকরা প্রাগপুর-কুষ্টিয়া সড়কের তারাগুনিয়া বাজারে রবিবার বিকালে বিক্ষোভ মিছিল ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে।

অপর দিকে রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলার আল্লারদরগা বাজারে ৫ই জানুয়ারি নির্বাচনের স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত বর্তমান এমপি আলহাজ রেজাউল হক চৌধুরী মনোনয়ন না পাওয়ায় তার সমর্থকরাও বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ করেছে।

তবে দৌলতপুর থানা পুলিশ অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার আগেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে সেখানকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে জানা গেছে।