একীভূত হতে যাচ্ছে টুজি, থ্রিজি এবং ফোরজির লাইসেন্স

0
639

প্রযুক্তি ডেস্ক : টুজি ও থ্রিজি লাইসেন্সকে ফোরজির সঙ্গে সমন্বয় করে একটি লাইসেন্স দেওয়ার পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) পক্ষ থেকে জানা গেছে। ইতোমধ্যেই তারা বিভিন্ন মেয়াদের লাইসেন্সকে একটি সময়ের মধ্যে আনা এবং বিভিন্ন লাইসেন্সের শর্তগুলোকে একত্রিত করে একটি লাইসেন্স দেওয়ার জন্য কাজ শুরু করেছে বলে জানিয়েছে।

২০২৬ সালে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর দ্বিতীয় প্রজন্মের (টুজি) লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হবে এবং ২০২৮ সালে তৃতীয় প্রজন্মের (থ্রিজি) লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হবে। আর ফোরজি বা চতুর্থ প্রজন্মের লাইসেন্সের মেয়াদ ধরা হয়েছে ২০৩৩ সাল পর্যন্ত।

বিটিআরসির এ সংক্রান্ত গঠিত কমিটি এ বিষয়ে প্রথম বৈঠকও করেছে। এখন পর্যন্ত তারা সাতটি বিষয়ে একমত হয়েছে। এর মধ্যে সবার উপরে রয়েছে সব লাইসেন্সের মেয়াদ ২০৩৩ সাল পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া।

পরবর্তীতে ইউনিফাইড লাইসেন্সিং অর্থৎ সব অপারেটরই সব সেবা দিতে পারবে এই সিদ্ধান্তে যাবে তখন এটি বিশেষ সুবিধা দেবে বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে টুজি ও থ্রিজির মেয়াদ সাত বছর ও পাঁচ বছর বেড়ে গেলে সেজন্য বাড়তি টাকা দাবি করার বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে বিটিআরসি জানিয়েছে। সরকারের এ খাত থেকে তখন একটি বড় অঙ্কের রাজস্ব আয় আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

লাইসেন্সগুলোর মেয়াদ এবং শর্ত এক করা হলে তার ভিত্তিতে অডিট করা, গ্রাহকদের কল ডিটেইলস রেকর্ড সংরক্ষণ বা কোয়ালিটি অব সার্ভিস সংক্রান্ত অভিযোগও সহজে সুরাহা করা যাবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

অন্যদিকে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অপারেটরদেরও সিদ্ধান্ত নিতে সুবিধা হবে।